meghna
BD-women-cricketjpg

অনূর্ধ্ব ১৯ নারী ক্রিকেট দল বিশ্বকাপের সুপার সিক্স নিশ্চিত করে আজ বুধবার বেনোনিত যুক্তরাষ্ট্রকে হারিয়ে হ্যাটট্রিক জয় পূরণ করল বাংলাদেশের মেয়েরা। শেষ ম্যাচে এদিন যুক্তরাষ্ট্রকে ৫ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ।

meghna

অনূর্ধ্ব-১৯ নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে স্বপ্নের মতো সময় কাটছে বাংলাদেশের। শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে মিশন শুরুর পর এখন পর্যন্ত হার মানেননি প্রত্যাশা-স্বর্ণারা। এবার তাদের শিকার যুক্তরাষ্ট্র।

বুধবার (১৮ জানুয়ারি) দক্ষিণ আফ্রিকার বেনোনিতে যুক্তরাষ্ট্রকে ৫ উইকেটে হারিয়েছে বাংলাদেশ। প্রথম দুই ম্যাচ জিতেই সুপার সিক্স নিশ্চিত করে ফেলেন প্রত্যাশা-স্বর্ণারা। এই ম্যাচ জয়ে 'এ' গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হিসেবে পরের ধাপে যাচ্ছে বাংলাদেশ।

bd-cricket-team-win

অনূর্ধ্ব-১৯ নারী টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে উড়ছে বাংলাদেশ। অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে আসর শুরু করা বাংলাদেশের মেয়েরা পরের ম্যাচে হারিয়ে দেয় শ্রীলঙ্কাকে। বয়সভিত্তিক পর্যায়ে প্রথমবারের মতো আয়োজিত এই টুর্নামেন্টের তৃতীয় ম্যাচেও উড়লো বাংলাদেশের বিজয় কেতন। এবার তাদের শিকার যুক্তরাষ্ট্র।

টস জিতে আগে ব্যাটিং করতে নামে যুক্তরাষ্ট্র। সেভাবে উইকেট না হারালেও বাংলাদেশের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের সামনে বড় স্কোর গড়তে পারেনি যুক্তরাষ্ট্রের মেয়েরা। ৪ উইকেটে ১০৩ রানে শেষ হয় তাদের ইনিংস। জবাবে এদিন কিছুটা ব্যাটিং বিপর্যয়ই হয়েছে বাংলাদেশের। ১৫ বল হাতে থাকলেও এই রান পাড়ি দিতে ৫টি উইকেট পড়ে যায় বাংলাদেশের।

জয়ের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি বাংলাদেশের। দলীয় ১৯ রানে ওপেনার সুমাইয়া আক্তারকে হারায় তারা। ২ রান পরে আরিফা প্রত্যাশাও বিদায় নেন। সুমাইয়া ১০ ও প্রত্যাশা ৭ রান করেন। ২১ রানে ২ উইকেট হারিয়ে চাপে পড়া বাংলাদেশকে পথ দেখাতে শুরু করেন দিলারা আক্তার ও স্বর্ণা আক্তার।

এই জুটি থেকে ৩৮ রান পায় বাংলাদেশ। দলের চাপ কাটিয়ে অল্প সময়ের ব্যবধানে এই দুই ব্যাটার আউট হন। দিলারা ১৫ বলে ২টি চারে ১৭ ও স্বর্ণা ১৪ বলে ২টি চার ও একটি ছক্কায় ২২ রান করেন। অধিনায়ক দিশা বিশ্বাস ১০ রান করে আউট হলে রাবেয়া খান ও মিষ্টি সাহা দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছান। রাবেয়া ১৮ ও মিষ্টি ১৪ রানে অপরাজিত থাকেন।

এর আগে ব্যাটিং করা যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষে সর্বোচ্চ ২৬ রানের ইনিংস খেলেন স্নিগ্ধা পাল। এ ছাড়া দিশা ধিংগ্রা ২০, ইসানি ভাগেলা ১৭ ও অধিনায়ক গীতিকা কাডালি ১৬ রান করেন। বাংলাদেশের লক্ষ্য আরও ছোট হতে পারতো, কিন্তু অতিরিক্ত রান বেশি দেওয়ায় সেটা হয়নি। এদিন অতিরিক্ত ১৯ রান দেয় বাংলাদেশ।

ব্যাট হাতে ১০ রান করার আগে বল হাতে নেতৃত্ব দেন দিশা। বাংলাদেশ অধিনায়ক ৪ ওভারে একটি মেডেনসহ মাত্র ১৩ রানে ২টি উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হন। ৪ ওভারে ১৭ রানে একটি উইকেট নেন মারুফা আক্তার। রাবেয়া উইকেট না পেলেও দারুণ বোলিং করেন, ৪ ওভারে তার খরচা ১৪ রান।

 

এম/এস

meghna

আরও পড়ুন


meghna